Notice

ব্র্যাক ব্যাংক এর এ টি এম বুথ

 

ঠিকানা  ও অবস্থান

হাউজঃ ১, রোডঃ ১২, সেক্টরঃ ১, ঢাকা-১২৩০

:সাউথ টেক ভবনের নিচ তলায় সামনে অবস্থিত।

বুথটিতে টাকা জমা দেয়া এবং একাউন্ট খোলার ব্যবস্থা নেই। দুইটি মেশিন আছে এখানে। ১০০, ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট তোলা যায়। সব সময় খোলা থাকে। সর্বোচ্চ ২০ হাজার টাকা করে দিনে দুইবার এবং আরও একবার ১০ হাজার টাকা তোলা যায়।

 

ঠিকানা  ও অবস্থান

হাউজঃ ২, সেক্টরঃ ৪, ঢাকা।

আজিমপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাথে নওয়াব হাবিবুল্লাহ মডেল স্কুল এন্ড কলেজ সংলগ্ন।

বুথটিতে টাকা জমা দেয়া এবং একাউন্ট খোলার ব্যবস্থা নেই। তিনটি মেশিন আছে এখানে। ১০০, ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট তোলা যায়। সব সময় খোলা থাকে। সর্বোচ্চ ২০ হাজার টাকা করে দিনে দুইবার এবং আরও একবার ১০ হাজার টাকা তোলা যায়।

 

 

ঠিকানা  ও অবস্থান

হাউজঃ ২১, রোডঃ ৭/ডি, সেক্টরঃ ৯, উত্তরা, ঢাকা।

উত্তরা কারস শোরুমের ১০ গজ দক্ষিণে আকাশ প্লাজার নিচ তলায় অবস্থিত।

বুথটিতে টাকা জমা দেয়া এবং একাউন্ট খোলার ব্যবস্থা নেই। তিনটি মেশিন আছে এখানে। ১০০, ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট তোলা যায়। সব সময় খোলা থাকে। সর্বোচ্চ ২০ হাজার টাকা করে দিনে দুইবার এবং আরও একবার ১০ হাজার টাকা তোলা যায়।

 

ঠিকানা  ও অবস্থান

হাউজঃ ১০/এ, রোড নংঃ ৭/ডি, সেক্টরঃ ৯, উত্তরা মডেল টাউন, ঢাকা ১২৩০।

পলওয়েল কারনেশ টাওয়ার এর ১৫ গজ পশ্চিমে সরকার অটোমোবাইলের নিচ তলায় অবস্থিত।

বুথটিতে টাকা জমা দেয়া এবং একাউন্ট খোলার ব্যবস্থা নেই। তিনটি মেশিন আছে এখানে। ১০০, ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট তোলা যায়। সব সময় খোলা থাকে। সর্বোচ্চ ২০ হাজার টাকা করে দিনে দুইবার এবং আরও একবার ১০ হাজার টাকা তোলা যায়।

 

ঠিকানা  ও অবস্থান

হাউজঃ ১৮, সেক্টরঃ ৯, সোনারগাঁও এভিনিউ রোড, ঢাকা

শপার্স ওয়ার্ল্ড ভবনের সাথে ব্র্যাক ব্যাংক উত্তরা শাখার নিচ তলায় অবস্থিত।

বুথটিতে টাকা জমা দেয়া এবং একাউন্ট খোলার ব্যবস্থা নেই। চারটি মেশিন আছে এখানে। ১০০, ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট তোলা যায়। সব সময় খোলা থাকে। সর্বোচ্চ ২০ হাজার টাকা করে দিনে দুইবার এবং আরও একবার ১০ হাজার টাকা তোলা যায়।

 

 

ঠিকানা  ও অবস্থান

হাউজঃ  ৪,  সেক্টর-১১, সোনারগাঁও জনপথ রোড,  ঢাকা

মন্ডল সিকিউরিটি লিঃ এর ১০ গজ দক্ষিণে এন ডেভেলপমেন্ট ভবনের নিচ তলায় অবস্থিত।

বুথটিতে টাকা জমা দেয়া এবং একাউন্ট খোলার ব্যবস্থা নেই। তিনটি মেশিন আছে এখানে। ১০০, ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট তোলা যায়। সব সময় খোলা থাকে। সর্বোচ্চ ২০ হাজার টাকা করে দিনে দুইবার এবং আরও একবার ১০ হাজার টাকা তোলা যায়।

Print
error: Content is protected !!